aimatropawakhabor
শরীয়তপুর, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪ইং
বিকেল
শরীয়তপুর, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪ইং
aimatropawakhabor
শিরোনাম

নড়িয়া উপজেলায় কলেজ পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক সখিপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সামছুল আলম

২০-মে-২০২৩, দুপুর ১:৫২      

itpoka

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ -২০২৩ নড়িয়া উপজেলায় কলেজ পর্যায় প্রতিযোগীতায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মনোনীত হলেন নড়িয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক জনাব সামসুল আলম।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে (১ম ব্যাচ) ইংরেজি বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করে ২০১৩ সালে নড়িয়া কলেজের যোগদান করেন তিনি।

শিক্ষাগত যোগ্যতা, বিষয়ভিত্তিক জ্ঞান ও নিষ্ঠা সহকর্মী ও কর্তৃপক্ষের সাথে সহযোগিতার প্রবণতা চারিত্রিক দৃঢ়তা -ব্যক্তিত্ব, সততা ও সুনাম শৃঙ্খলাবোধ, সময়ানুবর্তিতা,শ্রেণিকক্ষে পাঠদানে নিয়মানুবর্তিতা ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরি এবং শ্রেণিকক্ষে মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার সৃজনশীল প্রকাশনা গুনগতমানের শিক্ষায় উদ্ভাবনী/ সৃজনশীল উদ্যোগ ও উত্তম চর্চার নিদর্শন যাচাই-বাছাই করে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ -২০২৩ নড়িয়া উপজেলায় কলেজ পর্যায় প্রতিযোগীতায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মনোনীত হন প্রভাষক মো: সামসুল আলম।

উপজেলায় কলেজ পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মনোনীত হওয়ায় তাঁর নিজ প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী,অভিভাবক, সহকর্মী ও পরিচালনা পর্ষদ সহ এলাকার সুধীজন সবাই উনাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। অনেক শুভাকাঙ্খীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

পরিবার ও কলেজ সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৬ খ্রিস্টাব্দের ১ জুলাই শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার ডি এম খালি ইউনিয়নের চরচান্দা গ্রামে জন্মগ্রহন করেন জনাব সামসুল আলম।

তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। তার বাবা ডি এম খালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ও  সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। মা একজন গৃহিনী এবং উপজেলার ‘শ্রেষ্ঠ জয়িতা’ হিসেবে পুরস্কারপ্রাপ্ত। ৬ বোন ও ২ ভাইয়ের  মধ্যে তিনি ৫ম। তার ছোট ভাই সিভিল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে পাওয়ার গ্রীডে কর্মরত। তার বোনেরাও সরকারি চাকুরিজীবি।

শিক্ষাসচেতন, মধ্যবিত্ত পারিবারিক পরিমণ্ডলে তাঁর জন্ম ও বেড়ে ওঠা। তিনি ভেদরগঞ্জ উপজেলার ডি এম খালীস্থ  চরভয়রা  উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০০২ সালে এস এস সি, সিরাজ সিকদার ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচ এস সি এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (১ম ব্যাচ) ইংরেজি বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। এবং ২০১৩ সালের  ৩০ অক্টোবর ৩২ তম  বিসি এস (সাধারন শিক্ষা) ক্যাডারে, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক হিসেবে নড়িয়া সরকারি কলেজে যোগদান করেন। দীর্ঘ দিন যাবত ব্যাপক নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে তার দায়িত্ব পালন করে কলেজ ও এলাকায় ব্যাপক সুনাম অর্জন করেন।

শিক্ষক- কর্মকর্তা হিসাবে চাকুরীর পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে ছোটবেলা থেকেই জড়িত। কিশোর কল্যান সংগঠন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড উপজেলা ও জেলা কমিটি, প্রয়াস, শরীয়তপুর সাংস্কৃতিক ফোরাম, এস এস সি ২০০২ ব্যাচ বাংলাদেশ, শরীয়য়পুর ব্লাড ব্যাংক সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত থেকে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও  মানবিক কর্মকান্ডে জড়িত রয়েছেন।

নড়িয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মাকসুদা খাতুন বলেন, জনাব সামছুল আলম একজন সৎ দায়িত্বশীল কর্মকর্তা। শিক্ষার্থীদেরকে সহজ করে পড়ানোর ক্ষেত্র তিনি অসাধারণ। তার এই পুরস্কার প্রাপ্তিতে নড়িয়া সরকারি কলেজ পরিবার খুবই গর্বিত ও খুশি।

প্রভাষক জনাব সামসুল আলম এর অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ অর্জন ও সম্মান আমার একার নয়, এটি আমার শিক্ষার্থীদের,অভিভাবকদের,সহকর্মী, কলেজ পরিচালনা পর্ষদ সহ অত্র এলাকার সবার।এতে শিক্ষা ও শিক্ষার্থীদের প্রতি আমার দায়বদ্ধতা অনেকাংশে বেড়ে গেল। ভবিষ্যতেও শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের পাশাপাশি শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের উন্নয়নে কাজ করে যাব। এবং এই পুরস্কার তার বাবা মা, সন্তান, সহকর্মী ও তার প্রিয় শিক্ষার্থীদেরকে উৎসর্গ করেন।


আর্কাইভস | ২০-মে-২০২৩

আর্কাইভস | শরীয়তপুর পোষ্ট